Breaking News

পীরগঞ্জবাসীর প্রতি খোলা দরখাস্ত-৩


প্রতি এলাকাবাসী পীরগঞ্জ-রংপুর। প্রসঙ্গঃ করোনা! হে প্রিয় আসুন কিছু সু-খবর ছড়িয়ে দেই। আশ্বস্ত করি আত্মীয় স্বজন,বন্ধু-বান্ধব,পাড়া-প্রতিবেশিসহ রাষ্ট্র কে। আমি আজ বেশ কিছু দিন হলো করোনা পরিস্থিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ঘরবন্দি হয়েছি পরিবার পরিজন নিয়ে। বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাইনা। গেলেও হাতে গ্লাভস এবং মাক্স ব্যবহার করি। সেই সাথে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলি। ইতিমধ্যে সারা বিশ্ব জানে করোনার উপসর্গ কি। জানে কি এই রোগের লক্ষণ। অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি এসব কোন লক্ষণই আমার পরিবারের কারো মধ্যে নাই। আমরা সুস্থ আছি,স্বাভাবিক আছি এবং সুন্দর আছি। আশা করি আপনারাও নিজ প্রয়োজনে নিরাপত্ত্বার স্বার্থে। সুস্থ সুন্দর আগামী পৃথিবীর স্বার্থে ঘরবন্দি আছেন এবং সুস্থ,স্বাভাবিক এবং সুন্দর আছেন। প্রিয় বন্ধু সামাজিক দুরত্ব মানে অসামাজিকতা নয়। ঘরে থাকুন কিন্তু সাধ্যমত যোগাযোগ রাখুন বন্ধু বান্ধব আত্মীয় স্বজনের সাথে। খোঁজ নিন প্রতিবেশির। সাধ্যমত সহযোগিতা করুন একে অপর কে। সবাই কে কিছু দিন ঘরবন্দি হবার অনুরোধ করুন। কেবল রাষ্ট্র যন্ত্রের উপর নির্ভর করা মানে দায়িত্বহীনতা। প্রিয় ফেসবুক বন্ধুগণ মানবজাতির ক্রান্তি লগ্নে আসুন বিভ্রান্তি এবং গুজব ছড়ানো থেকে বিরত থাকি। কারো দোষ ত্রুটি ধরা থেকে বিরত থাকি। প্রয়োজনে গঠনমূলক মতামত দেই। তবে জনস্বার্থ বিরোধী এবং জনস্বাস্থ্যহানীকর কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানাই-প্রতিবাদ করি। প্রিয় পীরগঞ্জবাসী প্রশাসনের উপর দোষারুপ করার সুযোগ নেই এই মূহুর্তে। ধরুন পীরগঞ্জে প্রায় ছয় লাখ মানুষ। তার বিপরীতে থানায় পুলিশ আছে সর্বোচ্চ ত্রিশ জন। এবং তারাও নিরাপদ নয়। নেই তাদের নিরাপত্ত্বার ব্যবস্থা। আবার আসুন পীরগঞ্জে ডাক্তার আছে সর্বোচ্চ বিশ জন। তারাও সুরক্ষিত না। অন্য দিকে দেশের সূর্য সন্তানরা তথা সেনা বাহিনীর সদস্যরা সংখ্যায় কত সেটিও ভাববার বিষয়। তারাই বা কতটুকু নিরাপদ সেটিও বিবেচনা করা প্রয়োজন। আপনি নিজে দায়িত্বশীল হলে তারাও নিরাপদে থাকবে। অতএব আসুন নিজে দায়িত্বশীল হই। নিরাপদে থাকি নিরাপদ রাখি। হে প্রিয় আপনি সুস্থ আছেন এটি প্রচার করা জরুরি। আমাদের হাতে শক্তিশালী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক আছে। আসুন এই দূর্যোগে এটির সময় উপযোগী ব্যবহার করি। আমি এবং আমরা ভালো আছি। আপনি এবং আপনারা ভালো আছেন নিশ্চয়। সেবু মোস্তাফিজ পীরগঞ্জ প্রতিনিধি দৈনিক যায়যায়দিন পীরগঞ্জ-রংপুর।

No comments