Breaking News

তিন মাসের বিদ্যুৎ বিলে বিলম্ব ফি আদায় না করার নির্দেশ

করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া জনসাধারণকে ঘর থেকে বের না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সরকার। তাই চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি, মার্চ ও এপ্রিল মাসের বিদ্যুৎ বিলের সারচার্জ বা বিলম্ব মাশুল আদায় না করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
রোববার (২২ মার্চ) এ-সংক্রান্ত একটি চিঠি বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের চেয়ারম্যানের কাছে পাঠিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলেছে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়।
চিঠিতে বলা হয়, বিদ্যুৎ বিভাগের আওতাধীন বিদ্যুৎ বিতরণকারী সংস্থা/কোম্পানিসমূহ গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে থাকে। গ্রাহকগণ বিভিন্ন ব্যাংক এবং মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে সরবরাহকৃত বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করে থাকেন।
বর্তমানে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে অনেক গ্রাহকই জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাসাবাড়ি থেকে বের হচ্ছেন না। এর পরিপ্রেক্ষিতে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি, মার্চ ও এপ্রিল মাসে অনেক গ্রাহকই নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে পারবেন না মর্মে প্রতীয়মান হচ্ছে।
এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে ফেব্রুয়ারি, মার্চ ও এপ্রিল মাসের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের ক্ষেত্রে সারচার্জ বা বিলম্ব মাশুল ব্যতিরেকে পরিশোধের নিমিত্ত বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন কর্তৃক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ জানানো হলো।
গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পরার পর বিশ্বের ১৮৩টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে সংক্রমিত হয়েছেন তিন লাখ ১৫ হাজার ২৬৩ এবং মারা গেছেন ১৩ হাজার ৫৮২ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন অন্তত ৯৫ হাজার ৮৯২ জন।
বৈশ্বিক এই মহামারির ছোবল পৌঁছেছে বাংলাদেশেও। গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে এই ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হওয়ার পর রোববার পর্যন্ত ২৭ জন সংক্রমিত হয়েছেন। তাদের মধ্যে পাঁচজন ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন এবং মারা গেছেন দুজন।

No comments