Breaking News

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব কে উৎসর্গ করে “মুজিব” বাংলা ফন্টের শুভ উদ্বোধন

জাতির জনকের জন্মশত বার্ষিকি উপলক্ষ্যে গত ১৫- ই মার্চ এম.আর.আই স্টুডিও এর পক্ষ থেকে “মুজিব” বাংলা ফন্টের শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করা হয়েছে। ফন্টটি বানিয়েছেন এম আর আই খোকন, পেশাগত দিক দিয়ে তিনি একজন সফল ফ্রিলেন্সার গ্রাফিক্স ডিজাইন নিয়ে কাজ করেন, উদ্বোধন অনুষ্ঠানে দেশের বড় বড় ডিজাইনার ছাড়াও বিভিন্ন আইটি উদ্যোগতারা উপস্থিত থেকে এই ফন্ট সম্পর্কে কথা বলেছেন।তার মধ্যে এম.আর. আই স্টুডিয়ের প্রতিষ্ঠাতা এম.আর.আই খোকন, ফ্রিপিক ব্যান্ড এর অ্যাম্বাসেডর নাজমুস শাকিব, পেয়নিয়ার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ইমরাজিনা খান, দৈনিক সংবাদপত্রের সম্পাদক মোঃজাহাঙ্গীর হোসেন, লেখক ও সাংবাদিক রাহিতুল ইসলাম, টেকনোভিসের প্রতিষ্ঠাতা কাজী মামুন, ভাইজার এক্স এর সি ই ও ফয়সাল মুস্তফা, সফটকিং এর কো-ফাউন্ডার রিফায়েত রিফাত, ন্যানোসফট বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা সুমন সাহা সহ আরো অনেকেই।

ফন্টটি ব্যাক্তিগত এবং ব্যাসায়িক দুইক্ষেত্রেই সম্পূর্ন ফ্রি তে ব্যবহার করা যাবে।আপাতত ফন্টটির রেগুলার ভার্শন পাওয়া যাচ্ছে। পরবর্তিতে আরো কিছু ভার্শন ফ্রি তে দেওয়া হবে। এখানে ক্লিক করে ফন্টটি ডাউনলোড করতে পারবেনঃ 01. https://photoshopaction.net/downloads/mujib-bangla-font/  অথবা এই লিংক এ  02. shorturl.at/egruG মুলত বাংলা ফন্টের বিকাশ, সহজলভ্যতা এবং মুজিবের জন্মশত বর্ষকে স্মরন করে, তারপ্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ফন্টটি তৈরি করা হয়েছে। আসলে মুজিব ফন্ট তৈরির গল্পটি ভিন্ন রকমের ছিল। বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকি উপলক্ষ্যে ভিন্ন কি করা যায়, সেই ভাবনা থেকেই মুজিবের নামে ফন্ট বানানোর ধারনা মাথায় আসে। কেননা লিখনির মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু কে বাঙালী জাতি সব সময় স্মরণ করতে পারবে। শুরু হলো মুজিবের নামে ফন্ট তৈরি করার এক কর্মযজ্ঞ। রাত দিনের পরিশ্রমে একটু একটু করে দীর্ঘ ৬ মাসের কর্মফলে তৈরি হলো আমাদের ‘মুজিব’ বাংলা ফন্ট।
এর মধ্যে অনেক বাধা-বিপত্তির সম্মুখিন হয়েছি কিন্তু থেমে যাইনি। পরক্ষনেই মনে হয়েছে মায়ের ভাষার জন্যে ফন্ট তৈরি করছি, থেমে যাওয়া মানেই হেরে যাওয়া। ভাষা যেমন আমাদের হৃদয়ে জায়গা নিয়ে আছে, তেমনি বঙ্গবন্ধুরও। তাই এই ‘মুজিব’ ফন্টের মাধ্যমে ভাষা এবং বঙ্গন্ধুর মাঝে আমরা একটা সেতু বন্ধন করে দিয়েছি। এম আর আই স্টুডিও এর প্রধানের পরিকল্পনা বাংলা ভাষা-ভাষিদের জন্যে অন্তত ১০ টি বাংলা ফন্ট তৈরি করা। আমরা আশা করছি আমাদের পরিশ্রম করা তখনি সার্থক হবে, যখন জাতির জনকের জন্মশত বার্ষিকিতে সরকারী ও বেসরকারী সহ সকল বাংলা ভাষাভাষী প্রতিষ্ঠানে মুজিব ফন্ট এর ব্যাবহার হবে। আর এ ভাবেই আমরা বঙ্গবন্ধুকে লিখনির মাধ্যমে সব সময় স্মরণ করতে পারি।

[লিখেছেনঃ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম]

No comments