Breaking News

রংপুরে "লকডাউন" বলে গুজব সৃষ্টি হয়েছে বললেন- উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা- টি এম এ মমিন

করোনা পরিস্থিতে 'লকডাউন' শিরোনামে অতি উৎসাহিত হয়ে কয়েকটি ইলেকট্রিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় সংবাদ সম্প্রচার হওয়ায় গুজব সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করেন- পীরগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা টি এম এ মমিন। এছাড়াও তিনি আরও বলেছেন- "করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতাই হোক বড় শক্তি।" কিন্তু গত ২০ ফেব্রুয়ারি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কয়েকটি ইলেকট্রিক ও প্রিন্ট মিডিয়াতে বাংলাদেশের শিবগঞ্জ ও পীরগঞ্জ উপজেলা করোনা পরিস্থিতে 'লকডাউন' শিরোনামে অতি উৎসাহিত হয়ে সংবাদ প্রচার করে। ফলে, এর কারনেই রংপুর পীরগঞ্জ উপজেলার এলাকাবাসী,স্থানীয় বাসিন্দা সহ তাদের আত্মীয় স্বজন যারা জীবিকার প্রয়োজনে বাইরে থাকে সবাই আতঙ্কিত হয়ে পরে। এ বিষয়ে গত ২৩ মার্চ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেসবুকে) সংবাদকর্মী সেবু মোস্তাফিজ উপজেলার করোনা প্রতিরোধ কমিটির কাছে "পীরগঞ্জ লকডাউন "এমন প্রচারের ব্যাখ্যা চেয়ে একটি "খোলা দরখাস্ত" দেয়। যেটি ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্ট করে। অন্যদিকে পীরগঞ্জে কর্মরত সাংবাদিকগণ বিভিন্ন মহলে যোগাযোগ করে জানতে পারে বাহির থেকে আগত কিছু সংবাদকর্মী অতি উৎসাহিত হয়ে এটি প্রচার করে বিভ্রান্তি ছড়ায়। সাংবাদিক সেবু মোস্তাফিজ তার "খোলা দরখাস্তে" বলেন, করোনা প্রতিরোধ কমিটির বিবৃতি মতে পীরগঞ্জে করোনা আক্রান্ত এবং লক্ষণ আছে এমন একজন কেও পাওয়া যায়নি। তাহলে পীরগঞ্জ লকডাউন এমন প্রচারণা কেন করা হলো? অবশেষে, গত ২৬ মার্চ ইউএনও মমিন, তার এক সাক্ষাৎকারে বলেন- পীরগঞ্জে করোনা বিষয়ে কোথাও কোন গুজব নাই,তবে "পীরগঞ্জ লকডাউন শিরোনামে একটি সংবাদ প্রচার করে গুজব ছড়ানো হয়েছে"। মূলত পীরগঞ্জ লকডাউন করা হয়নি। গনজমায়েত এড়াতে হোটেল,রেস্তরা ও চায়ের দোকান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

No comments