Breaking News

রংপুর জেলা অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন

আজ বুধবার (১৫ এপ্রিল) রাত ১০ টা থেকে রংপুর মহানগরীসহ পুরো জেলার আট উপজেলায় অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। রংপুরের জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আসিব আহসান লকডাউনের বিষয়টি নিশ্চিত করে এক গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন।
জারি করা গণবিজ্ঞপ্তি জেলা প্রশাসক জানান, রংপুরের আশপাশের জেলাগুলোতে ব্যাপকভাবে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে রাত ১০ টার পর থেকে রংপুর মহানগরসহ জেলার বাইরে কাউকে যেতে দেয়া হবেনা এবং বাইরে থেকে কারও আসতে দেয়া হবেনা। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ আদেশ বলবৎ থাকবে বলেও জানান তিনি।
তিনি আরো জানান, করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ সংক্রান্ত জেলা কমিটি রংপুর এর সভায় সিদ্ধান্ত এবং সিভিল সার্জন রংপুর এর সুপারিশ ক্রমে সংশ্লিষ্ট সকলের সাথে আলোচনা করে সংক্রামক প্রতিরোধ আইন ২০১৮এর ১১(১)১১(২)১১(৩) ধারা মোতাবেক রংপুর জেলাকে অবরুদ্ধ(লকডাউন) ঘোষণা করা হলো।পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ আদেশ কার্যকর থাকবে। তবে জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান অর্থাৎ রোগীবাহী গাড়ি, ওষুধ, পণ্যবাহী, কৃষিপণ্য ও সংবাদপত্রসহ সকল ধরনের নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ও মালবাহী গাড়ি এসব নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে। এই আদেশ বাস্তবায়ন করতে জেলার সকল প্রবেশ ও বহির্গমন পয়েন্টে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চেকপোস্ট কার্যকর থাকবে। একই সাথে জরুরি প্রয়োজন বা কাজে চলাচলকারী রিকশায় একজন যাত্রী ও মোটরসাইকেলে চালক ব্যতীত অন্য কোন যাত্রী পরিবহণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার পর থেকে ওইসব জেলা থেকে অন্যত্র চলে যাওয়ার চেষ্টা করছে মানুষজন। এই পরিপ্রেক্ষিতে রংপুর জেলাকে করোনা ঝুঁকিমুক্ত রাখতে পার্শ্ববর্তী জেলার সকল সীমানা ও আন্তঃ উপজেলার মধ্যে সকল ধরনের যানবাহন যোগাযোগ ও জনসাধারণ চলাচল নিয়ন্ত্রণ রাখতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক আসিব আহসান।
সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় থেকে জারিকৃত সকল নির্দেশনা ও নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এই আদেশ বহাল থাকবে। এ নিয়ম ভঙ্গ করলে অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও তিনি জানান।
এদিকে জেলার আট উপজেলার প্রবেশপথে বসানো হয়েছে পুলিশের ২৩ টি চেকপোস্ট। রংপুরের পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, আজ ১৫ এপ্রিল রাত ১০ টা থেকে পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্থানীয় প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সন্ধ্যা থেকে লকডাউন ঘোষণায় মাইকিং করা হচ্ছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকে জানান, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও গাজীপুর থেকে অসংখ্য মানুষ উত্তরাঞ্চলের রংপুর জেলায় আসছেন। বিভিন্ন জেলায় পুলিশ ও সেনাবাহিনীর চেকপোস্ট থাকায় প্রধান সড়ক ব্যবহার না করে চোরাপথে ৬-৮ জন মিলে অটোরিকশায় রাতের আঁধারে নিজ এলাকায় প্রবেশ করছেন তারা। বিষয়টি বুঝতে পেরে তাৎক্ষণিকভাবে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগকে জানানো হচ্ছে।
সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক

No comments