Breaking News

এসইও কি? কোথায় শিখবেন?

এসইও মানে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন। অনেকেই এসই্ও শিখতে চান। এখন অনলাইনে যা করতে যান না কেন এসইও জানা লাগবেই। এসইও খুব সহজ আবার খুব কঠিন। চাইলে এসইও শিখতে পারেন সহজে।
সহজ এসইও
Search Engine Optimization কথাটির ভীতরে দুটি অর্থবহুল অংশ রয়েছে। একটি হচ্ছে Search Engine এবং অন্যটি হচ্ছে Optimization. তারমানে দাড়াচ্ছে SEO হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন-কে অপটিমাইজেশন করার এক ধরনের প্রযুক্তিগত ওয়েব কৌশল। এটিকে অন্যভাবেও বলা যায়- বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিন হতে কোন একটি ব্লগ/ওয়েবসাইটকে সার্চ রেজাল্টের ভাল অবস্থানে অথবা প্রথম পাতায় নিয়ে আসার কৌশল বা প্রক্রিয়াকেই Search Engine Optimization বলা হয়।
সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান (ইংরেজি: Search Engine Optimization) বা সংক্ষেপে এসইও (SEO) হলো একটি পদ্ধতি যার মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইট বা ওয়েবপেজকে সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহারকারীদের সার্চ বা অনুসন্ধান ফলাফলের তালিকায় প্রথম দিকে দেখানোর চেষ্টা করা হয়। এসইও কোনো একক কাজ নয়, বরং বহুক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরণের কাজের সাথে সম্পৃক্ত একটি পদ্ধতি, বলা যায় সমন্বিত পদ্ধতি।
সাধারণত একটি সার্চ ইঞ্জিনের ওয়েব ক্রলার বা সার্চ রোবট বা সার্চ স্পাইডার প্রায় সবসময় ওয়েবে থাকা একটি ওয়েবপেজ অন্য ওয়েবপেজে ও একই ভাবে এক ওয়েবসাইট থেকে অন্য ওয়েবসাইট ঘুরে বেড়ায়। এই রোবট বা স্পাইডা্র বা ক্রলার সমুহ বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করে নিদির্ষ্ট শ্রেণীতে সজ্জিত করে এবং সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহারকারীর খোজকৃত শব্দ বা শব্দগুচ্ছ অনুসারে সার্চ ইঞ্জিনের ফলাফল পাতায় প্রদর্শন করে। এই ক্রলার বিভিন্ন বিষয়ের উপর গুরুত্ব প্রদান করে । বিষয় সমুহকে দুই ভাগে শ্রেনীবদ্ধ করা যায়।
অনপেজ বা ওয়েবসাইটের ভিতরকার বিষয়সমুহ
অফপেজ বিষয়সমুহ
অনপেজ বা ওয়েবসাইটের ভিতরকার বিষয়গুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল:
  • ওয়েবসাইটের টাইটেল বা নাম
  • ওয়েবসাইটের মেটা ডেসক্রিপশন বা বিবরণ
  • ওয়েবসাইটের ম্যাটা কিওয়ার্ড ট্যাগ
  • ওয়েবসাইটে ব্যবহৃত ছবিগুলোর টাইটেল বা নাম
  • ওয়েবসাইটে ব্যবহৃত ছবিগুলোর অল্ট ট্যাগ
  • ওয়েবসাইটে ব্যবহৃত ছবিগুলোর ক্যাপশন
  • ওয়েবসাইটের বিভিন্ন পেজের মধ্যে অন্ত:সংযোগ
  • ওয়েবসাইটের সাথে অন্য ওয়েবসাইটের বহি:সংযোগ
  • সংযোগকৃত শব্দ ইত্যাদি
  • অফপেজ বা ওয়েবসাইটের বাইরের বিষয়সমুহের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল:
  • সোশ্যাল শেয়ার বা সামাজিক সাইটগুলোতে আলোচনা
  • ব্যাকলিংক বা অন্য ওয়েবসাইটের সাথে সংযোগের সংখ্যা ইত্যাদি
কোথায় শিখবেন?
কিভাবে SEO করতে হয় সেটির সহজ বা সংক্ষিপ্ত কোন উপায় নেই। SEO হচ্ছে চলমান গতানুগতিক পরিবর্তনশীল বিশাল একটি প্রক্রিয়া। যার বেশীরভাগ বিষয়ই সবসময় আপডেট ও পরিবর্তন হতে থাকে। তবে আপনি যদি SEO সম্পর্কিত বেসিক বিষয়গুলি ভালভাবে জানেন ও বুঝেন তাহলে সময়ের সাথে সাথে যতই পরিবর্তন হক না কেন পরিবর্তনের সবকিছুই আপনি সহজে বুঝতে পারবেন।
কম খরচে বেসিসের বিআইটিএম এ ভালো কোর্স করায়। এসইআপির অধীনে বৃত্তির ব্যবস্থাও আছে। এর বাইরে গুগল করলে ক্রিয়েটিভ আইটিসহ অনেক প্রতিষ্ঠানের নাম পাবেন।
কাজের ক্ষেত্র ও আয়
ফ্রিল্যান্সিং ছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে এসই দক্ষদের চাহিদা বাড়ছে। একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে এসইর কাজ করছেন মাজহারুল ইসলাম। তিনি বললেন, কাজের চাহিদা প্রচুর। বেতন ভাল।
একজন দক্ষ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজারের কাজের ক্ষেত্রের অভাব নেই। এখন, ফাইবার, আপওয়ার্কে, ফ্রিল্যান্সার.ডট, গুরু.কসহ অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে কাজ শুরু করতে পারেন। এসব সাইটে প্রতিমুহুর্তে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের হাজার হাজার কাজ যোগ হচ্ছে। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজারকে সম্ভব হলে লোকাল মার্কেটের কিছু কাজ করে নিজস্ব ব্র্যান্ডিং ভ্যালু বাড়ানো উচিত। এতে জাতীয় বা আন্তর্জাতিকভাবে কাজ প্রাপ্তির নিশ্চয়তা থাকে। এছাড়া প্রথমদিকের কাজগুলো ভালোভাবে সম্পন্ন করে রেপুটেশন ভালো করতে পারলে বায়ার খুশি হবে। এরপর তারা প্রয়োজনে আপনাকেই খুঁজে কাজ দেবে। মার্কেটপ্লেসের বাইরে কাজ করতে পারলে আপনার আয়ের পরিমানও বাড়তে পারে। তাই যথাসম্ভভ ভালোভাবে কাজ করা উচিত। অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে সাধারণত সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশনের যে কাজগুলো পাওয়া যায় তার মধ্যে কোনো সাইটকে গুগলের ১ নম্বর র‌্যাংকিং এ আনা, ফোরাম পোস্টিং, লিংক বিল্ডিং, সাইটের অনপেজ অপটিমাইজেশন, বুকমার্কিং সহ বিভিন্ন কাজ। একটি সাইটকে গুগলের প্রথম পেজে আনতে সাইটের কিওয়ার্ডের উপর নির্ভর করে সাধারণত ২০০ থেকে ১০০০ হাজার ডলার পর্যন্ত পাওয়া যায়। এছাড়া অন্যান্য কাজগুলো করে ঘন্টায় নূর্ণতম ২ ডলার থেকে শুরু করে ২০ ডলার পর্যন্ত আয় করা যেতে পারে। এছাড়া ফিক্সড প্রাইসে ফোরাম পোস্টিং, লিংক বিল্ডিং, ব্যাক লিংক বা বুকমার্কি করে ১০ ডলার থেকে শুরু করে ২০০ ডলার পর্যন্ত পাওয়া যেতে পারে। তবে এখানে মূলত আপনার কত সময় লাগবে এবং কোন কিওয়ার্ডের উপর কাজ করতে হবে সেটির উপর নির্ভর করে। তবে সাধারণত একজন দক্ষ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজের মাসে অনায়াসেই ২০/৩০ হাজার থেকে শুরু করে লক্ষাধিক টাকা আয় করতে পারেন।
বেসিক কিছু জ্ঞান থাকলেই আপনি এসইও শিখতে পারবেন, যেমন—
প্রাথমিক কম্পিউটার জ্ঞান : আপনার কম্পিউটারের সাধারণ ব্যবহার সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। কম্পিউটার সঠিকভাবে চালনা করতে জানতে হবে।
ইন্টারনেট জ্ঞান : আপনার প্রাথমিক ইন্টারনেট জ্ঞান থাকতে হবে। ইন্টারনেট কী এবং এটি ব্যবহার করে আমরা কী করতে পারি, এ সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে।
ব্রাউজিং সম্পর্কে ধারণা : আপনাকে ইন্টারনেট ব্রাউজিং সম্পর্কে জানতে হবে। কীভাবে সহজেই আপনি ইন্টারনেট ব্রাউজিং করে সঠিক তথ্য বের করতে পারবেন, এ দক্ষতা থাকতে হবে।
ইংরেজি দক্ষতা : ফ্রিল্যান্সিংয়ে ভালো করতে হলে ইংরেজিতে ভালো দখল থাকতে হবে। আপনার ইংরেজি জ্ঞান ভালো হলে আপনি আরো ভালোভাবে এসইওর কাজ বুঝতে/করতে পারবেন। কেননা, আপনাকে এসইওর আপডেট সম্পর্কে জানতে হলে প্রচুর পড়াশোনা করতে হবে আর এটি অবশ্যই ইংরেজিতে।
বিনামূল্যে এসইও প্রশিক্ষণ
আপনি যদি মানসম্মত এসইও প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে চান, তাহলে বর্তমানে আইসিটি মন্ত্রণালয়ের লার্নিং এন্ড আর্নিং ডেভেলপমেন্ট (LEDP) প্রজেক্ট, বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়ের অধীনে Skills for Employment Investment Program (SEIP) প্রজেক্ট BASIS institute of Technology & Management (BITM)-এর মাধ্যমে এসইও কোর্সে প্রশিক্ষণ নিতে পারবেন এবং এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে।

No comments