Breaking News

নবম শ্রেণির রেজিষ্ট্রেশন তথ্য সংগ্রহের ফরম ও জরুরি নির্দেশনা

এস.এস.সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য শিক্ষার্থীদের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ধাপটি হল নবম শ্রেণিতে রেজিষ্ট্রেশন। নবম শ্রেণিতে রেজিষ্ট্রেশনের কোন জটিলতা হলে পরবর্তীতে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে শিক্ষার্থী ও প্রতিষ্ঠান সমূহের নানা সমস্যায় পড়তে হয়। নবম শ্রেণিতে সবচেয়ে যে বিষয়টি সমস্যা তা হয় তা হলো শিক্ষার্থীদের বিভাগ নির্বাচন ও চতুর্থ ও অপশনাল বিষয় সঠিকভাবে দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন পক্রিয়া সম্পাদন করা। অনেক সময় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের যোগাযোগ বা অন্য কোন কারনে শিক্ষার্থীদের নবম শ্রেণিতে রেজিষ্ট্রেশন এর জটিলতা সৃষ্টি হয়।

কখনো কখনো শিক্ষার্থী ও অভিভাবক মিথ্যার আশ্রয় নেয় এবং শিক্ষকরাও অনেক সময় ডাটা এন্ট্রি করতে গিয়ে ভুল হয়ে যায়। নবম শ্রেণিতে রেজিষ্ট্রেশন এর অনাকাঙ্খিত ভুল এড়াতে প্রয়োজনীয় কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করলে ভুল অনেকটাই এড়ানো সম্ভব।
আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো নবম শ্রেণিতে অর্থ্যাৎ এসএসসি রেজিষ্ট্রেশন এর ক্ষেত্রে কোন বিষয়গুলো খেয়াল করলে বা মেনে চললে নবম শ্রেণিতে রেজিষ্ট্রেশন করতে আপনার ভুল হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকবে।
১. সঠিকভাবে তথ্য সংগ্রহ করা:
নিভূল রেজিষ্ট্রেশন এর পূর্ব শর্ত হল সঠিকভাবে রেজিষ্ট্রেশন করতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহ করা। তথ্য সংগ্রহের জন্য শিক্ষার্থীদের নবম শ্রেণিতে ভর্তির সময় প্রয়োজনীয় তথ্য নিয়ে নেওয়া ভাল। তাহলে পরবর্তীতে পুনরায় তথ্য সংগ্রহ করার ঝামেলায় পড়তে হয়না। তবে এখানে কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। অনেক সময় শিক্ষার্থীরা রেজিষ্ট্রেশনের পূর্ব পর্যন্ত তাদের বিভাগ, ঐচ্ছিক ও চতুর্থ বিষয় পরিবর্তন করে। তাই আমরা অনেকেই রেজিষ্ট্রেশন এর পূর্বে তথ্য সংগ্রহ করে থাকি। পূর্বে SIF Form এর ব্যবস্থা থাকলেও বর্তমানে তা নেই বলে অনেক সময় তথ্য সংগ্রহ করতে ঝামেলা হয়ে যায়। তাই বাংলা নোটিশ ডট কম নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নির্ভুল রেজিষ্ট্রেশন করার স্বার্থে আপনাদের জন্য একটি ফরম প্রস্তুত করেছে যা ব্যবহার করে আপনি সঠিকভাবে তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন।

ফরমটি ডাউনলোড করুন

ফরমটি প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্য একটি কপি করে তাদের নিজ হাতে পূরণ করে অভিভাবক ও শ্রেণি শিক্ষকের স্বাক্ষর সম্পাদন করে জমা দিতে বলবেন। এতে ভবিষ্যতে শিক্ষার্থীর কোন ভুলের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে দোষারোপ করতে পারবে না।
২. শিক্ষার্থীদের একটি সম্ভব্য লিস্ট তৈরি:
ফরম দ্বারা সংগ্রহিত তথ্য মোতাবেক রেজিষ্ট্রেশন করতে চায় এমন শিক্ষার্থীদের এর সম্ভব্য তালিকা তৈরি করুন। এই তালিকায় সম্ভব হলে শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর গ্রহন করুন। তালিকা প্রস্তুত করে প্রধান শিক্ষক ও শ্রেণি শিক্ষকের নিকট থেকে স্বাক্ষর গ্রহন করে শিক্ষার্থীর সংখ্যা নির্ধারণ করে ব্যাংক ড্রাফট করুন। তাহলে বাড়তি শিক্ষার্থীর ব্যাংক ড্রাফট করা লাগবেনা এবং সঠিক সময়ে কার্যক্রম সম্পন্ন করুন।
এই সকল কার্যক্রম রেজিষ্ট্রেশন এর বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার কম পক্ষে ১ মাস আগে সংগ্রহ করুন। তাহলে সঠিক সময়ে কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই রেজিষ্ট্রেশন কার্যক্রম সম্পন্ন করুন।
৩. টেম্পোরারী লিস্ট প্রিন্ট করে নিজে যাচাই করণ (১ম ধাপ):
আমরা কাজ করার পর অনেকেই টেম্পরারী লিস্ট না করে একেবারে চুড়ান্ত প্রিন্ট বের করে শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর নেই। যা একেবারেই একটি ভুল পদ্ধতি। আপনার রেজিষ্ট্রেশন কার্যক্রমের ডাটা এন্ট্রি সমাপ্ত হলে অবশ্যই টেম্পরারী লিস্ট প্রিন্ট করে শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষরগ্রহণ করবেন। তাহলে রেজিষ্ট্রেশন কার্যক্রমে আপনার ভুল হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যাবে। টেম্পরারী লিস্ট প্রিন্ট করে স্বাক্ষর সম্পাদন করে প্রয়োজনীয় কারেকসান করে আবারও একটি টেম্পরারী লিস্ট প্রিন্ট করবেন। এবার এই লিস্ট কোন শিক্ষক বা যারা ভাল বুঝেন বা দায়িত্বশীল কাউকে দিয়ে যাচাই করে নিবেন। তাহলে অনিচ্ছাকৃত ভুলগুলো পুনরায় যাচাই হয়ে যাবে।
শিক্ষার্থীদের যে সকল বিষয়গুলো যাচাই করে স্বাক্ষর করতে বলবে-
  • শিক্ষার্থীর তথ্য (যদিও অস্টম শ্রেণির তথ্য অনুযায়ী নবম শ্রেণির তথ্য সয়ংক্রিয়ভাবে আসে তবুও জটিলতা এড়ানোর স্বার্থে শিক্ষার্থীর প্রাথমিক তথ্য যাচাই করতে বলবেন)
  • শিক্ষার্থীর ছবি
  • শিক্ষার্থীর নির্বাচিত বিভাগ
  • ঐচ্ছিক বিষয় (মানবিক ও বিজ্ঞান শাখায় ৩য় বিষয় হিসেবে সে যে বিষয়টি নিতে চায় সেটি ঠিক আছে কিনা দেখতে বলবেন)
  • চতুর্থ বিষয় (শিক্ষার্থীর অপশনাল বিষয়টি ঠিক আছে কিনা দেখতে বলবেন)
  • মোবাইল নম্বর (মোবাইল নম্বরটি গুরুত্বপূর্ণ পরবর্তীতে যোগাযোগের জন্য)
৪. দ্বিতীয় টেম্পরারী লিস্ট প্রিন্ট ও শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর সম্পাদন:
মানুষ ভুলের উর্ধে নয়। অনাকাঙ্খিত ঝামেলা এড়াতে অবশ্যই প্রয়োজনীয় সংশোধনের পর পুনরায় টেম্পরারী লিস্ট বের করুন এবং এবারও শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর সম্পাদন করুন। আশার করা যায় দ্বিতীয় টেম্পরারী তালিকায় তেমন একটা ভুল পাওয়া যাবেনা যদি প্রথম ধাপটি আপনি সঠিকভাবে অনুসরণ করেন। দ্বিতীয় টেম্পরারী লিস্ট প্রিন্ট করে স্বাক্ষর সম্পাদন করুন এবং প্রতিষ্ঠান প্রধান ও দায়িত্বশীল ব্যক্তিকে অবগত করে চুড়ান্ত সাবমিট করবেন।
এই তালিকায় অবশ্যই আপনি প্রতিষ্ঠান প্রধান ও শ্রেণি শিক্ষক যাচাই করেছেন মর্মে স্বাক্ষর গ্রহণ করুন (তাহলে ভবিষ্যতে আপনার কাঁধে একক দোষ আসবেনা)
৫. চুড়ান্ত সাবমিট করার পূর্বে করণীয়:
আমাদের উদ্দেশ্য নির্ভুল রেজিষ্ট্রেশন কার্যক্রম সম্পন্ন করা। তাই চুড়ান্ত সাবমিট দেওয়ার আগে উপরের ধাপগুলো সঠিকভাবে অনুসৃত হয়েছে কিনা যাচাই করুন। একাধিকবার চেক করার পর প্রতিষ্ঠান প্রধানের অনুমতি সাপেক্ষে ফাইনাল সাবমিট করুন। এবং ফাইনাল লিস্ট বের করুন।
৬. ফাইনাল লিস্ট প্রিন্ট ও শিক্ষার্থীদের চুড়ান্ত স্বাক্ষর:
রেজিষ্ট্রেশনকৃত শিক্ষার্থীদের চুড়ান্ত তালিকা প্রিন্ট করার পর শেষ ধাপে শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর নিবেন। শিক্ষার্থীদের স্বাক্ষর গ্রহণ করার শ্রেণি শিক্ষকের স্বাক্ষর নিয়ে চুড়ান্ত তালিকা প্রতিষ্ঠান প্রধানের নিকট হস্তান্তর করবেন। টেম্পরারী লিস্ট, শিক্ষার্থীর সম্বলিত ফরম ও চুড়ান্ত তালিকাসহ সকল কাগজপত্রের এক কপি অবশ্যই আপনার কাছে রাখবেন।
উপরোক্ত নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করলে আশা করছি নবম শ্রেণির রেজিষ্ট্রশন সংক্রান্ত কোন সমস্যা আপনার হবেনা। আর কোন কারণে সমস্যা হলেও তার সমাধান অবশ্যই আছে। সব সময় সকল প্রশ্নের উত্তর বাংলা নোটিশ ডট থেকে পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজ লাইক দিয়ে সংযুক্ত থাকুন ও গ্রুপে জয়েন করুন।
এই পোস্টটি অবশ্যই আপনার ফেসবুক ওয়ালে শেয়ার করে টাইম লাইনে রেখে দিন। ভবিষ্যতে কাজে লাগবে।
পূর্বে পোস্টঃ banglanotice

কোন মন্তব্য নেই