Breaking News

জাগ্রত তরুণ স্বেচ্ছাসেবী সংঘ'এর শীতবস্ত্র বিতরণ


দেশে চলছে কনকনে শীত, পাশাপাশি ঘন কুয়াশায় অসহায় দারিদ্র মানুষের কষ্টের সীমা থাকে না। এসব হতদরিদ্র শীতার্ত মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন সমাজের কিছু মানব দরদি মানুষ।


বিজয় দিবস উপলক্ষে জাগ্রত তরুণ স্বেচ্ছাসেবী সংঘ এর উদ্যোগে গরিব ও অসহায়দের মাঝে ৫০টি কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। বুধবার বিকাল  ৩টার দিকে জাহাঙ্গীরাবাদ চৌমহনী বাবুর স্টান্ড এলাকায় স্থানীয় শীতার্তদের মাঝে এসব শীতবন্ত্র বিতরণ করা হয়।

শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জনাব মোঃ আতোয়ার মাস্টার, প্রতিষ্ঠাতা ব্রাইট স্টার কিন্ডারগার্টেন এন্ড স্কুল ও সঞ্চালনা করেন ১১নং পাঁছগাছী ইউপি এর চেয়ারম্যান পদপার্থী ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক জনাব মোঃ গোলাপ হোসেন মাস্টার।

একজন শীতার্ত মহিলা কম্বল পেয়ে বলেন, ‘আমরা এই এলাকার গরিব মানুষ আপনাগো কম্বল পাইয়া খুব খুশি হইছি। আমরা রাতে খুব কস্টে ঘুমাই। কেউ আমাগো কিছু দিয়া সাহায্য করে নাই। এই শীতের কম্বল দিয়া ঘুমাইতে পারুম।’ অনেকে কম্বল পেয়েই শরীরে জড়িয়ে নেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, জাগ্রত তরুণ স্বেচ্ছাসেবী সংঘের  প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জনাব হাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, আমাদের দেশে ছয় ঋতুর পালাক্রমে আসে শীত। শীতের প্রকোপ সারাদেশব্যপী। তবে উত্তরবঙ্গ এ এই শীতের তীব্রতা সবচেয়ে বেশি। আমাদের সংঘটি একটি স্বেচ্ছাসেবী সংঘ। আমরা এলাকার শিক্ষিত যুবকদের নিয়ে এটি গঠন করি। বিনামুল্যে রক্তদান, গরিব শিশুদের পাশে দাঁড়ানো, বিধবা ও বয়স্কা মহিলাদের সামাজিক মুল্য প্রদান এবং অন্যান্য আর্থসামাজিক  উন্নয়ন করা আমাদের জাগ্রত স্বেচ্ছাসেবী সংঘের উদ্দেশ্য। এরই ধারাবাহিকতাই আজ ৫০ জন শীতার্ত দরিদ্র মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হল। আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন, যাতে আমাদের সমাজ একটি মডেল সমাজ হয়। আজ যারা আর্থিক ও মানুষিক ভাবে পাশে আছেন তাদের সকলকে জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। 

আরো বক্তৃতা করেন কয়েকজন সমাজসেবী।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন শ্রী শংকর বাবু, পরিচালক ভুমিহীন কল্যাণ সমিতি সহ এলাকার সুধী বৃন্দ।

জাগ্রত তরুণ স্বেচ্ছাসেবী সংঘের মানবিক এই কাজের প্রশংসা পুরো এলাকাতে ছড়িয়ে পড়েছে। 

1 comment: