Breaking News

মাদককে না বলুন’ বাল্যবিয়ে রোধ করুনঃ পুলিশ সুপার রংপুর


০২ জানুয়ারী ২০২১খ্রিঃ শনিবার বেলা ১৪.০০ ঘটিকায় সময় পীরগঞ্জ থানাধীন ১০ নং শানেরহাট ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে মাদক জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর আইকন, বাংলাদেশ পুলিশের উজ্জ্বল নক্ষত্র, রংপুর জেলা পুলিশের সম্মানিত অভিভাবক, মানবিক পুলিশ সুপার, #জনাব_বিপ্লব_কুমার_সরকার_বিপিএম (#বার) #পিপিএম_পুলিশ_সুপার_রংপুর।

মাদক বিরোধী সভায় প্রধান অতিথি আরো বলেন, দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় মুক্তিযুদ্ধ তথা স্বাধীনতার চেতনা ধারণ করে জনগণের প্রকৃত সেবক হিসেবে আমাদের কাজ করে যেতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ২০২১ ও ২০৪১ রুপকল্প বাস্তবায়নে আমাদের হতে হবে গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। মানুষ পুলিশের কাছে সেবা, নিরাপত্তা ও স্থিতিশীল পরিবেশ চায়। সম্মান ও অধিকারের সঙ্গে সেবা প্রত্যাশা করে। আমাদের শতভাগ গণমুখী হতে হবে। জনগণ পুলিশের কাছ থেকে যেন স্বল্প সময়ের মধ্যে কাঙ্ক্ষিত সেবা পায় তা নিশ্চিত করতে হবে। এজন্য প্রযুক্তিনির্ভর আধুনিক পুলিশ গড়ে তোলা হচ্ছে। পুলিশের সেবা তাৎক্ষণিক পেতে জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ চালু রয়েছে। মাদক, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস ও বিদ্যমান আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা সভা এবং দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার, রংপুর মহোদয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি, অভিভাবকদের উদ্দ্যেশে বলেন, আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষৎ। তাদেরকে মানুষের মতো মানুষ করতে হলে অভিভাবকদের সর্তক থাকতে হবে,শিশুদের মনোবিকাশ ঘটানোর জন্য যাতে শিশুরা লেখা পড়ার পাশা পাশি খেলাধুলা করতে পারে। তিনি আরো বলেন আমরা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে চাই। দেশরত্ন মনীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার মিশন ভীষন ২০৪১ বাস্তবায়ন করতে হলে আজকের এই শিশুরাই সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে আগামীতে নেতৃত্ব দেবে, তার জন্য প্রতিটি অভিভাবকে তার শিশুর প্রতি কঠোর নজরদারী রাখতে হবে। মনে রাখবেন প্রতিটি শিশুর সবচেয়ে বড় শিক্ষালয় তার পরিবার। যাতে শিশুরা অসামাজিক কার্যকলাপ ও মাদকের মতো মরণ নেশায় আসক্ত না হয় সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে।

মা জাহানারা ফাউন্ডেশনের, আয়োজনে মাদক,জঙ্গীবাদ, জুয়া বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং বিরোধী সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন…..জনাব মোঃ কামরুজ্জামান, বিপিএম-সেবা, সহকারী পুলিশ সুপার (ডি-সার্কেল) রংপুর,  অফিসার ইনচার্জ জনাব সরেস চন্দ্র রায় প্রমুখ।

No comments