Breaking News

সহমত না ভিন্নমত , ভয় না জয় !


ভয় দিয়ে নয় মানুষের মন জয় করতে হয় ভালবাসা 

দিয়ে।  বিপদগ্রস্ত বা পিড়ীত মানুষের পাশে দাড়িয়ে, সহায়তা করে । 

মানুষের সাথে সুন্দর আচরন করে এবং কোন বিষয়ে ভিন্নমত থাকলে সেটা গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করে। 

শুধুমাত্র বক্তৃতা বা বিবৃতি  সাময়িক উন্মাদনার জোয়ার সৃষ্টি করতে পারে কিন্তু মানুষের মন জয় করতে পারে না। 

ভিন্নমতকে উপেক্ষা করে সমাজে প্রভাব বলয় টিকিয়ে রাখা যায় না। সহমতের চেয়ে ভিন্নমতকে অগ্রাধিকার দিলেই পরিবার, সমাজ , রাজনৈতিক দল, ক্ষমতা এবং রাষ্ট্র শক্তিশালী হয়। 

বক্তৃতা বা বিবৃতিতে আমরা অনেক কথাই বলি। বিশ্বের নামি দামি মানুষের কথা উদ্ধৃত করে থাকি। 

যেমন,—-

ফরাসি দার্শনিক ভলতেয়ারের একটি উক্তি খুব বিখ্যাত৷ আমাদের দেশের অনেককেই  সেটি উদ্ধৃতও করেন, “আমি তোমার কথার সাথে বিন্দুমাত্র একমত নাও হতে পারি, কিন্তু তোমার কথা বলার অধিকার রক্ষার জন্য আমি জীবন দেবো ৷”

আমরা অনেকেই এটা বলি বা  লেখি  কিন্তু কেউই মন থেকে বিশ্বাস করি কি ?

কারন আমাদের দেশে যে কোন রাজনৈতিক দলের ভিতরে কিংবা বাহিরে ভিন্নমত মানেই অপরাধ৷ 

আমরা শুধুমাত্র  সহমত সহ্য করি ,গুনগান শুনতে চাই , 

মনের মাধুরী মেশানো প্রসংশাসূচক কথামালা মিথ্যা হলেও প্রচার  চাই কিন্তু কোনভাবেই  ভিন্নমত নয়৷ 

ভিন্নমতের জন্য জীবন দেয়া তো দূরের কথা, সুযোগ থাকলে ভিন্নমতের জীবন নিতে চাই। ভিন্নমতের মানুষকে অপদস্ত করি এবং কোনঠাসা করে রাখার জন্য সদাজাগ্রত থাকি। 

ভিন্নমতকে উপেক্ষা না করে বরং বিবেচনায় নিয়ে সংশোধনে কাজ করাই শ্রেষ্ঠতম পন্থা। 

আবার সকল ভিন্নমতই কারও না কারও কাছে সহমত ৷ ভিন্নমত যতক্ষণ সহমতের  গন্ডির মধ্যে  থাকে, ততক্ষণ ভলতেয়ারগিরি  ঠিক আছে ৷ গণ্ডি পার হলেই ভলতেয়াররা স্ট্যালিন হয়ে ওঠে৷

আমরা আসলে সবাই মুখে মুখে ভলতেয়ারপন্থি, আর চেতনায় স্ট্যালিনপন্থি৷

আজকাল সমাজ, পরিবার ,রাজনৈতিক দলে কিংবা ক্ষমতা টিকিয়ে রাখতে সহমত ভাই সৃষ্টি করা হচ্ছে আর জনপ্রিয় হলেও ভিন্নমতালম্বীদের অপসারন করা হচ্ছে। 

সহমতের ভাইয়েরা জেনে বা না বুঝেই সমাজে কিংবা রাজনৈতিক দলে বিভাজন তৈরী করে সমাজ ও রাজনৈতিক দলকে দূর্বল করে চলেছে।ক্ষমতার চেয়ারকে হালকা করে তুলছে। 

জুজুর ভয় কিংবা কোন কিছুর প্রলোভন দেখিয়ে সাময়িকভাবে কিছু মানুষকে পাশে পেলেও আখেরে কিন্তু জুজু ওয়ালাদের সাথে কেউই থাকে না। 

জুজু ওয়ালাদের আত্মবিশ্বাস নেই, সমাজে গ্রহণযোগ্যতা নেই এবং যোগ্যতাও অনেক কম। তাই সবসময়ই তারা সহমত ভাই হয়ে কারও আশ্রয়ে থাকতে পছন্দ করে। 

কিন্তু ভিন্নমতালম্বীরা সাহসী, প্রত্যয়ী ও আত্মবিশ্বাসী। তাদের অন্যের অশ্রয়ের প্রয়োজন নেই। বরং তারা অন্যকে আশ্রয় দেয়। 

তাই ভিন্নমতালম্বীদের সমাজে বা রাজনৈতিক দলে কোনঠাসা না করে তাদের কথা শুনুন , তাদের মুল্যায়ন করুন এবং তাদের মূলধারায় ধরে রাখুন। 

ভয় দিয়ে কি হয় সমসাময়িক বিশ্বের সকলেই জানেন এবং দেখেছেন। 

সারা বিশ্বকে করোনা ভয় দেখাল, বিশ্বকে টালমাটাল করে মানুষকে ভয় দেখিয়ে জুবুথুবে করে ঘরে ঢোকাল,মানুষকে কর্মহীন করল , সারা বিশ্ব লকডাউনসহ নানামুখী সাবধানতা অবলম্বন করল।

বিভিন্ন রকম গবেষণা ও চেষ্টার ফলে করোনা এখন পরাভূত। করোনাকে এখন কেউ আর ভয়ও করে না, পাত্তাও দেয় না।

ভীরু-কাপুরুষ ও অযোগ্যরা যখন নিরাপদ অবস্থানে থাকে তখনই তারা অন্যকে শাসাতে সাহস পায়।

লেখকঃ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ

No comments