Breaking News

রাজশাহীতে বেতন স্কেল রাজস্ব খাতে স্থানান্তরের দাবিতে মানববন্ধন


পরিপত্র সংশোধন এবং চুক্তিপত্র বাতিল করে সাড়ে চার হাজার ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে ১৯৭২ সালের পর থেকে সরকারি প্রকল্পের নিয়ম অনুসারে বেতন স্কেল রাজস্ব খাতে স্থানান্তরের নীতিমালার দাবিতে রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার রাজশাহী বিভাগীয় শাখা মানববন্ধন করেছে। শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে বেলা ১১টা থেকে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার রাজশাহী বিভাগীয় শাখার উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বঙ্গবন্ধু পরিষদ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার রাজশাহী বিভাগীয় শাখার সভাপতি যোবায়ের হোসাইনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলামের সঞ্চালনায় বঙ্গবন্ধু পরিষদ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের আহ্বায়ক শেখ আব্দুল্লাহ আল-আমিন, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য সচিব এমদাদুল হক, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামসহ রাজশাহী বিভাগে কর্মরত শতাধিক সদস্য এ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ২০১০ সালের ১১ নভেম্বর একযোগে সারাদেশে ৪ হাজার ৫০০ ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার প্রতিষ্ঠা করেন। মূলত এই প্রতিষ্ঠানগুলো নিজের আয়ের ওপর নির্ভরশীল ইউনিয়ন পরিষদের দাপ্তরিক কাজগুলো করে তাদের জীবিকা নির্বাহ করতেন। ২০১৬ সালে ইউনিয়নগুলোতে হিসাব সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর নিয়োগ প্রক্রিয়া চলমান থাকায় ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের কর্মরতরা বেকার হয়ে পড়ছে। বর্তমানে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ দ্বারা অনেকেই বিতাড়িত হয়েছেন। চেয়ারম্যানরা নিজেদের লোক বসিয়ে অনেক জায়গায় ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার কর্মকর্তাদের কাজ করার সুযোগ দিচ্ছেন না। এই প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব কোনো নীতিমালা না থাকায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে (৮০-৯০%) ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারগুলোতে।

ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার একটি উচ্চ প্রকল্প হিসেবে যাত্রা আরম্ভ করলেও যথাযথ নিয়ম অনুসরণ না করে অদ্যাবধি শুধু একটি চুক্তিনামা জারি করে প্রতি ৫ বছর পর পর মনোনীত করা কতটা সমীচীন হয়েছে বলে তাদের প্রশ্ন। ১৯৭২ সালের সরকারি প্রকল্পের নিয়ম অনুসারে প্রত্যকটি নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয় বেতন স্কেল/প্যাকেজ বেতন এবং রাজস্ব খাতে স্থানান্তরিত হয়। তাই ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে কর্মরতরা সে নিয়মেই ফেরত যেতে চান।

পরিপত্র সংশোধন এবং চুক্তিপত্র বাতিল করে সাড়ে চার হাজার ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে বেতন স্কেল ও রাজস্ব খাতে স্থানান্তরের নীতিমালা গ্রহণে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

No comments